ব্রেকিং নিউজ

পূজনীয় প্রজ্ঞেন্দ্রিয় থের এর জন্মবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা

পূজনীয় প্রজ্ঞেন্দ্রিয় থের এর জন্মবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধা

ইলা মুৎসুদ্দী

ppr

বৌদ্ধ সমাজের বরেণ্য সাংঘিক ব্যক্তিত্ব পালি বাংলা অভিধানসহ বহু গ্রন্থের অনুবাদক ৬ষ্ঠ সংগীতিকারক প্রয়াত ভদন্ত শান্তরক্ষিত মহাথেরো, বৌদ্ধ সমাজ জাগরণের অগ্রদূত প্রয়াত গিরিমানন্দ মহাথেরো, হরিশচন্দ্র মহাস্থবিরসহ বহু মহামনীষিগণের জন্ম জন্মপদ বিনাজুরী গ্রাম।
এসব মহামনীষীদের ধর্মধ্বজা যারা এখনো উড়িয়ে যাচ্ছেন তাদের মধ্যে অন্যতম পশ্চিম বিনাজুরীজাত ভদন্ত প্রজ্ঞেন্দ্রিয় থের। তিনি ধার্মিক উপাসক মন্টু বড়ুয়ার ঔরসে এবং শ্রদ্ধাবতী উপাসিকা অনিতা রাণী বড়ুয়ার গর্ভে ১৯৬৭ সালের ৫ই ফেব্রুয়ারী রবিবার এ পৃথিবীতে আলোর মুখ দেখেন। যার গৃহী নাম ছিল শীলব্রত বড়ুয়া। নামের সাথে তাল মিলিয়ে ছোটকাল থেকেই পঞ্চশীল-অষ্টশীলাদি প্রতিপালন তথা সদ্ধর্মচর্চায় আগ্রহী ছিলেন তিনি।
সুযোগ পেলে বিদর্শন ভাবনানুশীলও করতেন। প্রয়াত বিদর্শনাচার্য বোধিপাল শ্রামণের নিকট তিনি তিনবার বিদর্শন ধ্যান কোর্সে অংশগ্রহণ করেন। শীলব্রত বড়ুয়া প্রাথমিক শিক্ষা সম্পন্ন করেন পরিশ্চম বিনাজুরী প্রাথমিক বদ্যিালয়ে। পরবর্তীতে বিনাজুরী নবীন বিদ্যালয় থেকে এস.এস.িস এবং গহিরা কলেজ হতে এইচ.এস.সি সস্পন্ন করেন।
নোয়াপাড়া ডিগ্রী কলেজে স্নাতক অধ্যয়নরত থাকাকালীন সময়ে পারিবারিক ব্যবসায় যোগ দেন। কিন্তু মুক্তি অন্বেষণে যার জন্ম তিনি তো আর সংসারের মায়াজালে বেশীদিন আটকে থাকতে পারেন না। আর তাই ২০০২ সালের ১৯ জুলাই পাহাড়তলী অরণ্য বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্রে বিদর্শন সাধক ভদন্ত প্রজ্ঞাজ্যোতি মহাথেরোর নিকট তিনি প্রব্রজিত হন। মাত্র তিন দিন পর তারই উপাধ্যায়ত্বে ২২ জুলাই কদলপুর ভিক্ষু প্রশিক্ষণ ও সাধনা কেন্দ্রের বদ্ধ সীমায় তিনি
উপসম্পদা লাভ করেন এবং নাম ধারণ করেন ‘প্রজ্ঞেন্দ্রিয় ভিক্ষু’। নামের সাথে কর্মের এক অপূর্ব মিলন। আচার্য প্রজ্ঞাজ্যোতি মহাথেরোর নিকট কর্মস্থান গ্রহণ করে তাঁর নীতি ও আদর্শ অনুসরণ করে প্রজ্ঞায় ইন্দ্র বা শ্রেষ্ঠ হওয়া এক কথায় বিমুক্তির রস অন্বেষণেই তাঁর পথচলা। তিনি ১ম, ২য় ও ৫ম বর্ষাবাস পালন করেন পাহাড়তলী অরণ্য বিদর্শন ভাবনা কেন্দ্রে, ৩য় ও ৪র্থ বর্ষাবাস নানিয়ারচর রামহরিপাড়া সুন্দরপুর অরণ্য কুটির এবং ৬ষ্ঠ থেকে বর্তমান পর্যন্ত শীলঘাটা জ্ঞানপাল-রত্নপ্রিয় অরণ্য কুটিরে অবস্থান করছেন। মধ্যখানে এক বর্ষা তিনি করইয়ানগর শ্মশানভূমি ধ্যানচর্চা কেন্দ্র তে কাটান। প্রতি বছর তার কাছে শত শত যুবক প্রব্রজ্যা নিয়ে বিদর্শন অনুশীলন করেন। আজ এই মহান ভিক্ষুর জন্মদিনে তাঁর পদতলে জানাই বিনম্র বন্দনা এবং কামনা করছি সদ্ধর্মের অগ্রগতিতে তাঁর এই সুন্দর নীরব পথচলা কুসুমাস্তীর্ণ হোক এবং তিনি শত বছর জীবিত থেকে আমাদের কলুষিত অন্তরকে প্রজ্ঞার আলোয় আলোকিত করুন। তাঁর মত আদর্শবান ভিক্ষু আমাদের বৌদ্ধ সমাজকে আলোকিত করবে এই প্রত্যাশা করছি।

সম্মন্ধে ela mutsuddi

এটা ও দেখতে পারেন

খুব সংক্ষেপে মহাসতিপট্ঠান সহায়িকা

একূশটি উপায়ে অরহ্ত্ত্ব লাভের উপায় তথা কর্মস্থান সংযূক্ত গভীর অর্থসংযুক্ত মহাসতিপট্ঠান সূত্তI এখানে একুশটি উপায়ে …

Leave a Reply