ব্রেকিং নিউজ

ধর্ম জেনে কী হবে?**** ইলা মুৎসুদ্দী

1

ড. এফ দীপংকর মহাথেরোর দেশনা থেকে: পুরো দেশনা শুনতে পারিনি, যা শুনেছি তার থেকে যতটুকু বুঝেছি তাই উল্লেখ করছি সংক্ষেপে। যেমন উনি বললেন, ধর্ম জেনে কী হবে? উদাহরণস্বরূপ বলেছেন – আমরা সকলেই জানি, দুধের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে। তাই আমি যদি এক গ্লাস দুধ নিয়ে চোখের সামনে রেখে বলি, হে দুধ তোমার অনেক পুষ্টিগুণ আছে। দুধ খেলে শক্তি বাড়ে, মুখে লাবণ্যভাব আসে। আমি এভাবে সারাক্ষণ বললে ও দুধের পুষ্টিগুণ আমার শরীরে কাজ করবে না। কারণ আমি তো দুধ খাইনি। শুধুমাত্র জানা কথাগুলি বলছি বলেই কোন কাজ হচ্ছে না। দুধের পুষ্টিগুণ লাভ করতে হলে আমাকে প্রতিদিন নিয়ম করে দুধ খেতে হবে। আরেকটি উদাহরণ ঃ রসগোল্লা কতই না মিষ্টি। কিন্তু আমি যতক্ষণ পর্যন্ত মুখে না দিব ততক্ষণ পর্যন্ত মিষ্টির স্বাদ কীরকম তা তো অনুভব করতে পারব না। এমনি হয়তো মুখস্ত বলতে পারব রসগোল্লা খুবই মিষ্টি। একইভাবে একজন লোক পুরো ত্রিপিটক মুখস্থ করলে ও কোন লাভ নেই। কারণ ত্রিপিটক মুখস্থ করে জেনেছেন। কিন্তু ধারণ করেননি, আচরণ করেননি পরিশেষে চর্চা অর্থাৎ অনুশীলন করেননি। তাই তিনি বলেছেন ধর্ম জেনে কী হবে? ধর্ম জানতে হবে, ধারণ করতে হবে, আচরণ করতে হবে এবং নিয়মিত অনুশীলন করতে হবে। অনুশীলন মানে ভাবনা অনুশীলন ব্যতীত চারি অপায়ের দ্বার রুদ্ধ করা কখনোই সম্ভব হবে না। তাই সকলেই ধর্মকে জানুন, ধারণ করুন, আচরণ করুন এবং প্রতিদিন ভাবনা অভ্যাস করুন। তাহলেই মানব জীবন হবে সার্থক। উনি যে উদাহরণ দিলেন, আপনি যদি রসগোল্লা একবার খান, বার বার খেতে চাইবেন। অনুরূপ আপনি যদি সম্যক পথে চলতে শুরু করেন, সবসময় এগিয়েই যাবেন। পিছনে আসার আর কোন উপায় থাকবে না। এতে করে আপনার সম্যক জ্ঞান উৎপন্ন হতে সময় লাগবে না।

সম্মন্ধে vuato2

এটা ও দেখতে পারেন

খুব সংক্ষেপে মহাসতিপট্ঠান সহায়িকা

একূশটি উপায়ে অরহ্ত্ত্ব লাভের উপায় তথা কর্মস্থান সংযূক্ত গভীর অর্থসংযুক্ত মহাসতিপট্ঠান সূত্তI এখানে একুশটি উপায়ে …

Leave a Reply