ব্রেকিং নিউজ

কি সেই পাথর?

chibar
ইলা মুৎসুদ্দী
মোগলটুলী শ্মশানভূমি শাক্যমুণি বিহারের চীবর দানে একবার পূজনীয় জিনবংশ  ভিক্ষুর দেশনা আমাকে খুব নাড়া দিয়েছে। সেই দেশনার একাংশ পাঠকদের সাথে শেয়ার করার জন্য আজকের লেখাটির অবতারণা। ভিক্ষু দেশনায় বলছেন, একজন শিক্ষক তাঁর একজন প্রিয় ছাত্রকে একদিন একটি ছোট পাথর দিয়ে বললেন, এই পাথরটি যতœ করে রেখো। খুবই মূল্যবান পাথর। ছাত্রটি পাথর হাতে নিয়ে নাড়াচাড়া করে দেখলো। আর মনে মনে বলছে, একটি ছোট পাথর এত মূল্যবান হয় কি করে? সে ভেবে ভেবে কূল পাচ্ছিল না। অবেশেষে সিদ্ধান্ত নিল, এই পাথরটি একজন মুচিকে দিয়ে দিবে। দেখি সে কি করে? চিন্তা অনুযায়ী সে একজন মুচির কাছে গেল, তাকে পাথরটি দিতে চাইল। প্রথমে মুচি নিতে চাইল না। পরে কি বুঝে পাথরটি নিয়ে একপাশে রেখে দিল। যার পাথর সে কিন্তু দেখে রইল মুচি পাথরটি দিয়ে কি করে? কেন এটা মূল্যবান বলল তার শিক্ষক। দেখল মুচি ওর জুতার সেলাইয়ের সুঁই কিছুক্ষণ পর পর ধার দিচ্ছে পাথরটিতে। ওর এটা ভালো লাগলো না। সে পাথরটি নিয়ে নিল মুচির কাছ থেকে। পরবর্তীতে পাথরটি নিয়ে গেল সে একজন ব্যাংকারের কাছে। মানে যিনি একটি ব্যাংকের কর্মকর্তা। ব্যাংকারও প্রথমে পাথরটি নিতে চাইল না। বললো আমার এখানে এত দামী দামী জিনিসের মাঝে পাথরটি নিয়ে আমি কি করব? তারপরও নিলেন। ছেলেটি দেখল, ব্যাংকার কর্মকর্তাটি পাথরটি দিয়ে অফিসিয়াল কাগজ চাপা দিয়ে রাখতে লাগল। এটাও ছেলেটির পছন্দ হলো না। ও বার বার নিজেকে জিজ্ঞেস করলো, কেন তাঁর শিক্ষক পাথরটিকে এত মূল্যবান বললেন? আমি তো এর কোন মূল্য দেখতে পাচ্ছি না। তাহলে মূল্যবান হয় কি করে? সবশেষে পাথরটি নিয়ে চেলেটি একজন স্বর্ণকারকে দিলেন। স্বর্ণকার দেখার সাথে সাথেই চিনে ফেললেন এবং ছেলেটির হাত থেকে পাথরটি নিয়ে বললেন, আমার সত সম্পদ আছে, বাড়ী, গাড়ী, দোকান সব তুমি নিয়ে নাও। তার বিনিময়ে তুমি এই পাথরটি আমাকে দিয়ে দাও। তখন ছেলেটি জিজ্ঞেস করলেন, এটা কি এমন পাথর যার জন্য আপনি এভাবে সব দিয়ে দিতে চাইছেন? তখন স্বর্ণকার বললেন, এটা পরশ পাথর। এই পরশ পাথর লোহায় ষ্পর্শ করলে লোহা সব স্বর্ণ হয়ে যাবে। এটা এতই মূল্যবান।
অনুরূপভাবে আমরা বুদ্ধ রত্ন, ধর্ম রত্ন ও সংঘ রত্ন পেয়েও ছেলেটির মত বুঝতে না পেরে দ্বারে দ্বারে বোকার মত ঘুরছি। কারণ আমরা এর মূল্য বুঝতে পারছি না। কিরকম পরশ পাথর আমরা পেয়েছি তা চিনতে চেষ্টা করছি না। মানব জন্ম বড়ই দুর্লভ। এই দুর্লভ মনুষ্য জন্মকে সার্থক করতে হলে বুদ্ধ ধর্ম ও সংঘ রতেœর পরশ পাথরকে চিনতে হবে। তাহলেই আমরা আমাদের জীবনকে আলোকিত ও সার্থক করতে পারব। সকলের মঙ্গল হোক।

সম্মন্ধে ela mutsuddi

এটা ও দেখতে পারেন

মেডিটেশান এবং আপনার ব্রেইন

Leave a Reply