ব্রেকিং নিউজ

মুসলিম মহিলাদের জীবন নষ্ট হতে দিতে পারি না, তিন তালাককে তুলোধনা প্রধানমন্ত্রীর

উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনের আগে মাহোবায় মহা পরিবর্তন র্যালিতে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী। মঞ্চে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, “এখন তিন তালাক ইস্যু সামনে এসেছে। কোনও হিন্দু কন্যাভ্রূণ হত্যার অপরাধ করলে, তাকে জেলে যেতে হয়। একইভাবে মুসলিম বোনেদের কী দোষ, যদি কেউ তাকে ফোনে তালাক দিয়ে দেয়। সেই মুসলিম বোনের জীবন তো নষ্ট হয়ে গেল।”

এদিকে, তিন তালাক ইস্যু নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ধর্মীয় রাজনীতি করার অভিযোগ করেছে কেউ কেউ। সে প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “গণতন্ত্রে আলোচনা হওয়া উচিত। সরকার তিন তালাক নিয়ে নিজেদের অবস্থান জানিয়েছে। তিন তালাকের বিষয়টিকে যারা অন্যপথে চালনা করতে চাইছে তারা অসাধু।” প্রধানমন্ত্রী স্পষ্ট করে দেন, “ তিন তালাকের মাধ্যমে দেশের মুসলিম মহিলাদের জীবন নষ্ট হতে দেবে না সরকার।”

প্রধানমন্ত্রী জানান, সুপ্রিম কোর্টে সরকার স্পষ্ট জানিয়য়েছে, ধর্মের কারণে মহিলাদের উপর কোনও অত্যাচার হওয়া উচিত নয়। একই কারণে মহিলাদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণও গ্রহণযোগ্য নয়।

বিষয়টি নিয়ে কিছু রাজনৈতিক দলের অবস্থানেরও সমালোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। বলেন, “আমি ভেবে অবাক হচ্ছি যে, এই একবিংশ শতকেও মহিলাদের উপর অবিচারের পক্ষে ঝুঁকে রয়েছে কিছু রাজনৈতিক দল। শুধুমাত্র ভোট ব্যাঙ্কের লালসায়। এটা কী ধরনের বিচার?”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “বিষয়টি নিয়ে যখন টিভিতে বিতর্ক হয়, তখন সেই বিতর্ককে হিন্দু-মুসলমান রং দেবেন না। বিতর্ক হওয়া উচিত মুসলিম সমাজে যাঁরা পরিবর্তন চান সে সব মানুষের সঙ্গে তাঁদের, যাঁরা দেশবাসীকে জানাতে চান না আসল বিষয়টা কী।”

11
সুত্রঃ eenaduindia

সম্মন্ধে vuato2

এটা ও দেখতে পারেন

পূজনিয় শরনংকর বনাম ডঃ হাছান মাহমুদ বা এরশাদ শিরোনামটা শতভাগ সঠিক নয়

(লেখাটি যে কোন কেউ ছাপাতে পারেন আমার অনুমতির প্রয়োজন নাই) পূজনিয় শরনংকর বনাম ডঃ হাছান …

Leave a Reply