ব্রেকিং নিউজ
প্রচ্ছদ / শিল্প ও সাহিত্য / কাব্য / !!রবীন্দ্রনাথ!! ধন্যবাদান্তে স্নেহাশীষ প্রিয় বড়ুয়া

!!রবীন্দ্রনাথ!! ধন্যবাদান্তে স্নেহাশীষ প্রিয় বড়ুয়া

bapy2

!!রবীন্দ্রনাথ!!
ধন্যবাদান্তে স্নেহাশীষ প্রিয় বড়ুয়া

শীত গ্রীষ্মে পা ফেলে, যখন অতীত পেলাম,
বুকে ভীষন রং ধরায়
“পুরনো সে দিনের কথা বলবো কিরে হায় ও সই”।
জীবনের প্রত্যয়ে তোমার
“রেলগাড়ীর কামড়ায় হঠাৎ দেখা, ভাবিনি দেখা হবে কোনদিন”
ভীষন নাড়া দেয় মধ্যগগনে।
সারাদিন কলের চাকা ঘুরিয়ে যখন ঘরে ফিরি রিক্ত শুন্য হাতে,
কটাক্ষ হানে তোমার
“এ জীবন কারে দিলি জয়সিংহ”
আমার চোখের পাতা ডুবে যায় জলে।
আজ অনেক বছর পর সঞ্চিত বারিধারার কিঞ্চিত নিয়ে,
তোমাকে প্রনতি জানাতে
বাধ সাধে শেষের কবিতার অমিত, দাড়ি-গোফ কামানো চাচামাজা,
হাসি, নড়াচড়া, কথার জবাব চঞ্চল, এমনি এক রকমের চকমকি,
যেন ঠুন করে ঠুকলেই স্ফুলিংগ ছিটকে পড়ে, নিজেকে অপরুপ করার শখ নেই,
ফ্যাশানকে বিদ্রুপ করার অপর্যাপ্ত কৌতুক রাখে, বদান্যতার উপঢৌকনে,
তোমাকে আমার কাছ থেকে দূরে নিয়ে যায়- ভাললাগার এভুলুশ্যান ছড়িয়ে।
মনে পড়ে তোমার অমিত বলেছিল, পাঁচ বছর পুর্বের ভাললাগা,
পাঁচ বছর পরে ও যদি একই জায়গায় দাঁড়িয়ে থাকে,
তবে বুঝতে হবে, বেচারা মরে গেছে, সেন্টিমেন্টাল আত্নীয়স্বজনেরা
তার অন্তেষ্টি সতকারে বিলম্ব করছে- উপযুক্ত উত্তরাধীকে ফাকি দেবার মতলবে।

সম্মন্ধে vuato2

এটা ও দেখতে পারেন

banor

মূর্খ ব্যক্তির ত্রিলক্ষন হচ্ছে

দুশ্চিন্তাকারী, দুর্ভাষনকারী ও দুষ্কর্মকারী, অঙ্গুত্তরনিকায়ের চিহ্ন সুত্রে উক্ত, আবার কে মূর্খ কে জ্ঞানী কে তথাগতকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *